Sunday, August 19, 2007

বিরুদ্ধ বাতাসে চাই তোমার আঁচল


চারিদিকে হেমন্তের হিম নেমে আসে

কালান্তক শীত নামে বসন্তের ঘাসে

আমি অসহায় একাকী ভাবি শুধু একটা শান্ত মুখশ্রী

আমি তাঁর মালিকানাধীন আবাস নই

ভেসে যাওয়া কামারখালি , কালো ছই

নোঙ্গর ফেলার অবকাশে হারিয়ে ফেলা কোন তিথি


আমার কাছাকাছি থাকে না রবি

আমি দুপুরের রোদে মুছে যাওয়া ছবি

খুঁজে ফিরে আসি একটা শূন্য বিছানায় , ঘরে

অতর্কিত একাকীত্বকে ছুড়ে ফেলে ভাবা

নিঃসঙ্গতার সিড়ি বেয়ে নিরন্তর নাবা

এভাবেই কেটে যাওয়া চিরচেনা কক্ষপথ ধরে


অথচ তৃতীয়া ছিলো না এমন আশা

ছিলো না আঁধারে পথ ভুলে ভাসা

আহত চাতকের পাখায় ছুঁয়ে এক নদী জল

মায়াবী , অভিমানী হলে জেনে রেখো

ঈষানের কোনে জানালা খুলে দেখো

এখনো বিরুদ্ধ বাতাসে চাই তোমার আঁচল !

5 comments:

sriman apurbo kumar ray said...

even the busiest seconds shy away...
when i take a deep plunge in your poems;
those hymns of life that i was searching,
as if an unknown pauper finally found some pearls -
while loitering in a desolated bay.

Anonymous said...

may god bless gopalda and her wife. wishing jante chai boudi a speedy recovery.

Selim said...

ধন্যবাদ কবিতার জন্য

চন্দ্রাহত said...

আমি চন্দ্রাহত,সমগ্র অস্তিত্ত্বে থইথই জোৎস্না! হাতের মুঠোয়,জিনসের পকেটে, বুকের বেয়াড়া লোমগুলো মাখামাখি জোছনার রূপালি আদরে!
গুগলে বাংলায় জ্যোৎস্না লিখে সার্চ দিলাম। পেয়ে গেলাম একজন আধাপরিচিত কবির তিনটে ব্লগ!
ভালো লাগছে পড়তে....নিয়মিত পাঠক, এবং ছিদ্রান্বেষী হয়ে গেলাম আজ থেকে!

shree said...

darun hoyechhey .