Friday, July 20, 2007

তোমার ঠোঁটে


তোমার ঠোঁটের চৌকাঠে প্রিয়
দাঁড়ায়েছি দেখো আজ ভিখারিনী
বিভাবরী , মরি! চাঁদের এই আলো
বরষার মেঘ দু’কুল হারালো
দাও অনুমতি , হৃদয়ের পতি ,
লও ঘরে , করো পান্থ রে ঋণী ।

কমল কপোলে , নয়নের দিঘী
তরে থর কাঁপে হিয়া বিরহিনী
রঙধনু বাঁকে রাঙানো দুয়ারে
সচকিত স্থিত চরন রুয়া রে
কর্ণ ফলকে , পুলকে পলকে
প্রণয় মদিরা করি বিকিকিনি !

6 comments:

Anonymous said...

রাগাপা@শিহরিত হলাম। আরো চাই নতুন নতুন কবিতা।

Alone said...

"..বরষার মেঘ দু’কুল হারালো
দাও অনুমতি , হৃদয়ের পতি ,
লও ঘরে , করো পান্থ রে ঋণী ।.."

ei line gulo khub beshi valo lagaychay..

good..

Anonymous said...

কবির হ্রদয়ে অনুভূতির জোয়ার থাকলেই কেবল এমন স্বতঃস্ফূর্ত কবিতা সৃষ্টি সম্ভব । এই শিল্পিত অনুভব টিকে থাক, নব নব সৃষ্টির আনন্দে, অমর হয়ে ।

জীবনের গাড়ি ত এক জায়গায় গিয়ে থমকে দাঁড়াবেই । ততদিন পর্যন্ত নব সৃষ্টির এই ধারা চলতে থাকুক ।

তবে নিজেকে কষ্ট দিয়ে নিজের কষ্টানুভূতির শিল্পিত রূপ সৃষ্টি যেন বারবার না হয় । We should take care ourselves first.


অসীম শুভকামনা রইল ।

:) :) :)
রোবট রাজকন্যা

শ্রীমান অপূর্ব কুমার রায় said...

সে যখন শব্দ সেজে আবারও করল দুষ্টুমি, কলির খোকন অবাক তখন, খালি খালি ঠকায় আমায় এমন করে কাঁদায় - ও পচা আর যাচ্ছেতাই।

শফিকুল ইসলাম 'টুটুল' said...

ভালোলাগলো... কবিতা লেখাটা বন্ধ কইরেন না... শত ব্যস্ততার মাঝে নিজের জন্য অন্তত এইটুকু থাক...

ভালো থাকেন

Mreenmoy said...

কঠিন....

যে কথা তোমায় বলতে পারিনি আজও
সে কথা এখন স্ফুলিঙ্গ হতে চায়